হােমাে ইরেকটাস ও হােমাে স্যাপিয়েন্স মানুষের বৈশিষ্ট্য উল্লেখ করাে।

হােমাে ইরেকটাস ও হােমাে স্যাপিয়েন্স মানুষের বৈশিষ্ট্য উল্লেখ করাে। Mark 5

উত্তর:

সূচনা: মস্তিষ্কের আকার অনুযায়ী আদিম মানুষের নানারকম ভাগের অন্যতম দুটি হল হােমাে ইরেকটাস অর্থাৎ সােজা হয়ে দাঁড়াতে পারা মানুষ এবং হােমাে স্যাপিয়েন্স অর্থাৎ বুদ্ধিমান মানুষ। 

হোমাে ইরেকটাস ও হোমোস্যাপিয়েন্স মানুষের বৈশিষ্ট্য 

[1] হােমাে ইরেকটাস: এরাই ছিল প্রথম সােজা হয়ে দাঁড়াতে পারা মানুষ। এদের কয়েকটি বৈশিষ্ট্য হল— (i) আনুমানিক ২০ লক্ষ থেকে ৩ লক্ষ ৫০ হাজার বছর আগে এদের অস্তিত্ব ছিল। 

(ii) এরা দু-পায়ে ভর দিয়ে সােজা হয়ে দাঁড়াতে পারত।

(iii) এরা দলবদ্ধভাবে গুহায় থাকত ও শিকার করত।

(iv) এরা প্রথম আগুনের ব্যবহার শিখেছিল। 

(v) এরা প্রথমে স্তরকাটা নুড়িপাথরের হাতিয়ার এবং শেষে হাতকুঠার বানাতে শিখেছিল। 

[2] হােমাে স্যাপিয়েন্স: এরাই ছিল প্রথম বুদ্ধিমান মানুষ। এদের কয়েকটি বৈশিষ্ট্য হল—

(i) আনুমানিক ২ লক্ষ ৩০ হাজার আগে এদের অস্তিত্ব ছিল। 

(ii) এরা দল বেঁধে একসঙ্গে বড়ো পশু শিকার করত। 

(ii) এরা নানা কাজে আগুনের ব্যবহার শুরু করে। 

(iv) এরা পশুর মাংস পুড়িয়ে খেতে ও পশুর চামড়া পরতে শেখে। 

(v) এরা ছােটো, তীক্ষ্ণ, ধারালাে পাথরের অস্ত্র (বর্শা জাতীয়) বানাতে শেখে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *